National

কসবার পুরাতন বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ল অর্ধশত দোকান

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা পৌর শহরের পুরাতন বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আজ বৃহস্পতিবার রাত নয়টা থেকে আগুন লেগে একের পর এক দোকান পুড়ছে। এতে ৫০টির বেশি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা রাত সাড়ে নয়টা থেকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছেন। কসবার পুরাতন বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ল অর্ধশত দোকান।

ফায়ার সার্ভিস, ব্যবসায়ী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কসবা পৌর শহরের পুরাতন বাজারের সিএনজি স্টেশন এলাকায় বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে আগুন ধরে যায়।

মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। এতে জয় হার্ডওয়্যার ও ইলেকট্রিক দোকানে রং ও কেমিক্যাল থাকায় আগুন দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ছে। হোটেলে গ্যাস সিলিন্ডার, রং এবং কেমিক্যালের ড্রাম একের পর এক বিস্ফোরিত হতে থাকে। মুতি মিয়া মার্কেট, রহমত উল্লাহ মার্কেটসহ আরও কয়েকটি মার্কেটের ৫০টির বেশি দোকান পুড়ে গেছে।

খবর পেয়ে রাত সাড়ে নয়টার দিকে কসবার কুটি চৌমুহনী ফায়ার সার্ভিস থেকে একটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। রাত ১০টার দিকে আখাউড়া থেকে ফায়ার সার্ভিসের আরও ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। তাদের সহযোগিতা করছেন স্থানীয় লোকজন। রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। কসবার পুরাতন বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ল অর্ধশত দোকান।

মুতি মিয়া মার্কেটের মালিক মো. জিয়াউল হুদা বলেন, তাঁদের ১০ শতাংশ জায়গায় ৩০টির বেশি দোকান রয়েছে। তা পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। তা ছাড়া রহমত উল্লাহ মার্কেট, জয় হার্ডওয়্যার মার্কেটসহ কমপক্ষে ৫০টি দোকান পুড়ে গেছে। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

জয় হার্ডওয়্যার ও ইলেকট্রিক দোকানের মালিক মো. বাবলু মিয়া বলেন, ‘তিন দিন আগে রং, কেমিক্যালসহ অনেক মালামাল এনেছি। কিন্তু সব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। কীভাবে আগুন লেগেছে, কিছুই বলতে পারছি না।’

কসবা ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার আবদুল্লাহ খালেদ বলেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট কাজ শুরু করেছে। অন্য একটি যোগ দিয়েছে। আরও ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়েছে।

আপনার জন্য আরও কিছু তথ্যঃ

শিক্ষা, সংস্কৃতি, ব্যবসায়, চাকরি সংক্রান্ত যেকোন তথ্য সবার আগে পাওয়ার জন্য আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক ও ফলো করে রাখুন এবং ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সংশ্লিষ্ট তথ্য

একটি মন্তব্য যোগ করুন অথবা অভিযোগ পেশ করুন

Back to top button